Breaking News

কাজলকে ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট দিয়ে বা থালা ছুড়ে মারতেন তনুজা

কাজলের সাড়ে চার বছর বয়সেই তাঁর বাবা এবং মায়ের বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। কিন্তু সোমু মুখোপাধ্যায় এবং তনুজা যদিও তাঁদের সম্পর্কের আঁচ তাঁদের দুই মেয়ে কাজল এবং তনিশার উপর পড়তে দেননি। কাজলই বলেছিলেন, মায়ের স'ঙ্গে তাঁরা আলাদা হয়ে গেলেও বাবা তাঁদের পাশেই ছিলেন। বছর কয়েক আগে এক সাক্ষাৎকারে কাজল তাঁর বড় হয়ে ওঠা নিয়ে কথা বলেছিলেন। যেখানে তনুজার শাসনের প্রস'ঙ্গও তোলেন তিনি।

কাজলের কথায়, ‘‘মা এবং বাবা খুব প্রগতিশীল মানুষ। আর তাঁদের এই মানসিকতার সুপ্রভাব পড়েছিল আমা'দের বড় হয়ে ওঠায়।’’ কাজল মনে করেন, সময় মতো তাঁর বাবা-মা আলাদা হয়েছেন। নয়তো এক স'ঙ্গে থেকে গেলে সমস্যা বাড়তে পারত। কাজল বলেন, ‘‘আমা'র নিজের মেয়ে হওয়ার পর মায়ের আ'ত্মত্যাগের মূল্য বুঝি।’’

ছোটবেলায় তাঁকে ঘিরেই তনুজার দিন কাটত। তার জন্য মাঝে মধ্যেই পিঠে দু-চার ঘা পড়ত কাজলের। বলি তারকা দুষ্টুমি করলে কখনও তাঁকে ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট দিয়ে, কখনও বা থালা ছুড়ে মা'রতেন তনুজা। কিন্তু কাজল ১৩ বছর বয়সে পড়তেই তনুজা তাঁকে বলেন, ‘‘আমি আর তোমাকে মা'রব না। এখন তুমি বড় হয়ে গিয়েছ। নিজের সি'দ্ধান্ত, নিজের কাজের দায়িত্ব নিজেই নেবে।’’ যদিও সেই স'ঙ্গে এ কথাও জানিয়েছিলেন, যদি কখনও বড় কোনও ভুল করেন কাজল, তখন মা'রধর করতে দ্বিধাবোধ করবেন না তনুজা।

About Admin_dhakasongbad

Check Also

‘তৃণমূলের সবাই বাচ্চাসমেত ঘুরছে’, নুসরত প্রসঙ্গে টেনে কটাক্ষ সায়নীকে, সপাট জবাব নায়িকার

ভোটে জিততে না পরালেও, সায়নী ঘোষের জনপ্রিয়তা রাজনীতির ময়দানে এতটুকুও কমেনি। বরং দিন দিন বেড়েই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *